Menu

মজলিস খোদ্দামুল আহমদীয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্যোগে ৩১তম বার্ষিক তালিম তরবিয়তী ক্লাশ (২০১৫-২০১৬) এর রিপোর্ট

মজলিস খোদ্দামুল আহমদীয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্যোগে গত ২৬ ডিসেম্বর’১৫ হতে ১ জানুয়ারী’১৬ পর্যন্ত ৭ দিন ব্যাপী ৩১তম স্থানীয় বার্ষিক তালিম-তরবিয়তী ক্লাশ (২০১৫-২০১৬) আহমদী পাড়াস্থ মসজিদ বায়তুল ওয়াহেদ-এ আল্লাহর অশেষ ফজলে সম্পূর্ণ আবাসিক ব্যবস্থাপনায় সফলতার সাথে অনুষ্ঠিত হয়, আলহামদুলিল্লাহ। ২৬শে ডিসেম্বর শনিবার বাদ মাগরীব মোহতরম এখতিয়ার উদ্দিন শুভ-কায়েদ মজলিস খোদ্দামুল আহমদীয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সভাপতিত্ত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কুরআন তেলাওয়াত করেন জনাব আতাই রাব্বি, নযম উর্দূ পরিবেশন করেন জনাব নুরুদ্দিন আহমদ। উদ্বোধনী ভাষণ ও দোয়া পরিচালনা করেন মোহতরম কায়েদ সাহেব। অভ্যর্থনা বক্তব্য রাখেন জনাব রাশেদুল আলম চেয়ারম্যান ক্লাশ কমিটি। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মৌলানা জহির উদ্দিন আহমদ মুরুব্বি সিলসিলাহ ।

এ বৎসর সম্পূর্ণ আবাসিক ব্যবস্থাপনায় তিন বেলা খাবার ও রাতে মসজিদে রাত্রি যাপনের পদ্ধতিতে ক্লাশ হয়। ক্লাশে কুরআন নাযেরা, কায়দা শিক্ষা, কুরআন মুখস্ত, হাদীস, দোয়া শিক্ষা, ওযূ আযান ও নামায শিক্ষা, দ্বীনিমালুমাত, সিলসিলার কিতাব শিক্ষা ক্লাশ হয়। তন্মধ্যে কোরআন মুখস্থ ও নামাজ শিক্ষা ক্লাশ হয় দিনে ২বার। প্রথম দিনে ৯টি টীম গঠন করা হয় ক্লাশ এর সুবিধার্থে। ক্লাশ চলাকালীন সময়ে টীম সমূহ দ্বারা যে সব দায়িত্ব পালন হয় তা হলো – দৈনিক ৫ ওয়াক্ত নামাযের আযান ও ইকামত দেওয়া, মসজিদ পরিষ্কার, টয়লেট পরিষ্কার, ওয়াক্তি নামাজের সময় নিরাপত্তা, খাদ্য পরিবেশন, পানি পরিবেশন, বেদারী ও কম্বল বিতরণ, জুতার সেলফ গোছানো ও ওযূখানা পরিষ্কার ইত্যাদি।

ক্লাশের প্রথম তিন দিন তরবিয়তী সেমিনার হয় যথাক্রমে চেয়ারম্যান ক্লাশ কমিটি, নাযেম তরবিয়ত ও কায়েদ সাহেবের সভাপতিত্বে। সেমিনার সমূহে আলোচনার বিষয় ছিলো-“নামাজের গুরুত্ব” “এতায়াতে নেযাম ও এর সুফল” “প্রতিদিন কোরআন তেলাওয়াতের গুরুত্ব”। যথারীতি ৭ দিনব্যাপী ক্লাশ ও প্রতিযোগীতার পর ১লা জানুয়ারী’১৬ শুক্রবার বাদ জুম্মা মোহতরম কাউসার আহমদ-মোহাসেব মজলিস খোদ্দামুল আহমদীয়া বাংলাদেশ এর সভাপতিত্ত্বে ক্লাশের সমাপনী ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। কোরাআন তেলাওয়াত ও নযমের পর শুকরিয়া জ্ঞাপন করেন মোহতরম এখতিয়ার উদ্দিন শুভ, কায়েদ ব্রাহ্মণবাড়িয়া। শুভেচ্ছা বক্তৃতা দেন মোহতরম মোহাম্মদ মঞ্জুর হুসেন- আমীর সাহেব ব্রাহ্মণবাড়িয়া। এরপর সভাপতি সাহেব সমাপনী ভাষণ দেন। এবৎসর ৩টি পর্বে প্রতিযোগীতা হয়। প্রতি পর্বে কৃতিত্ব অর্জনকারী এ+, এ, এ- ও উত্তীর্ণদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয় । আহাদ পাঠ ও ইজতেমায়ী দোয়ার পর ৩১তম বার্ষিক ক্লাশের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। এ বৎসর ক্লাশে অত্র মজলিসের ৮৬ জন আতফাল,২২ জন খোদ্দাম মোট ১০৮ জন সম্পূর্ণ নিয়মিতভাবে মসজিদে সার্বিকভাবে অবস্থান করে ক্লাশে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও মোহতরম সদর সাহেবের নির্দেশে পার্শ্ববর্তী ৩টি মজলিসের ১৪ জন আতফাল উক্ত ক্লাশে অংশগ্রহণ করেছে, ক্লাশের মোট হাজিরা ১২২ জন।

closing 1-