Menu

সেহেত-ও-জিসমানী

সংক্ষেপে সেহেত-ও-জিসমানী (Health & Fitness) বিভাগের দায়িত্বঃ

হযরত খলীফাতুল মসীহ সালেহ (রাহে.) বলেন- “পশ্চিমা জাতি সমূহকে আমরা ততক্ষন পরাজিত করতে পারব না যতক্ষন আমরা স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে তাদের পরাজিত না করবো। অর্থাৎ স্বাস্থ্যের দিক থেকে, শারীরিক স্বাস্থ্যের দিক থেকে আমরা তাদের চেয়ে অগ্রগামী না হবো। খুব বেশি অধ্যবসায়ের সাথে কাজ না করব।” (আল ফযল, জলসা সালানা সংখ্যা- ১৯৮১)

এ বিষয়ে যেন বিশেষভাবে যেন দৃষ্টি দেয়া হয়, প্রত্যেক খোদ্দাম যাতে প্রত্যেহ প্রাত:ভ্রমন অথবা কোন খেলাধূলা অথবা ব্যায়াম অভ্যস্থ হয়ে যায়। এমন খোদ্দামদের বিশেষভাবে খেলার জন্য প্রস্তুত করুন যারা শক্তি সামর্থ্যের দিক থেকে সামর্থ্য রাখে কিন্তু শুধুমাত্র অলসতা অথবা জ্ঞানের অভাবে নষ্ট হচ্ছে তাদের শিখানোর ও সংশোধনের ব্যবস্থা নিন।

হযরত মুসলেহ মাওউদ (রা.) বলেন- “খেলাও একটা কাজ, যেভাবে খাওয়া ও শোয়া একটা কাজ।” এজন্য বড় মজলিস সমূহ অবস্থানুসারে নিজেদের মজলিসে দলীয় খেলাসমূহের যে কোন একটির নিয়মিত ব্যবস্থা করুন। মজলিস, জেলা ও আঞ্চলিকভাবে বাৎসরিক ব্যায়ামের প্রতিযোগিতা করানো হোক। উত্তম হবে এটা যদি কেন্দ্রীয় বাৎসরিক স্পোর্টের আগে নেয়া হয় যাতে অঞ্চলের সবচেয়ে ভাল খেলোয়াড়দের প্রতিযোগিতার মাঝে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ হয়। চেষ্টা করুন নিকটবর্তী মজলিস সমূহের মধ্যে কোন কোন সময় পারস্পরিক প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। খেলার সময় সত্যবাদীতা, আনুগত্য, উত্তম চারিত্রিক গুণাবলী প্রদর্শনের বিষয় যেন ভুলে যাওয়া না হয়। খোদ্দামদের মাঝে এ বিষয়ে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টির চেষ্টা করুন। খেলোয়াড়দের মাঝে প্রত্যেক খেলার শুরুতে দোয়া করার অভ্যাস সৃষ্টি করুন।

পিকনিক, আনন্দভ্রমন, হাইকিং, সাইক্লিং ইত্যাদির মাধ্যমে স্বাস্থ্যসম্মত বিনোদনের ব্যবস্থা নিন। এখানে লক্ষঃ রাখতে হবে যে, পিকনিক বা আনন্দভ্রমণের মতো কর্মসূচীতে সাধারণতঃ অংশগ্রহণকারী ছাড়া অন্য কারো কাছ থেকে অনুদান আদায় করা যাবে না। জাতীয়ভাবে ও জাতীয় মজলিসের অনুমোদনক্রমে রিজিওনাল, জেলা বা স্থানীয়ভাবে হাইকিং ও সাইক্লিং ক্লাব প্রতিষ্ঠা করা যেতে পারে। এইরূপ প্রতিষ্ঠিত ক্লাবের মাধ্যমে এ ধরণের কর্মসূচীকে অনেক দূর এগিয়ে নেওয়া যেতে পারে।

বছরে কমপক্ষে একবার সব খোদ্দামদের জন্য চিকিৎসা প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করুন। স্বাস্থ্য রক্ষার বিভিন্ন বিষয় যেমন শারীরিক পরিচ্ছন্নতা, পরিমিত খাদ্যের ব্যবহার, ধুম পানের ক্ষতি, ব্যায়ামের উপকারীতা ইত্যাদির উপরে বক্তৃতা দেওয়ানো হোক এবং প্রবন্ধ লিখে ছাপানোর জন্য কেন্দ্রে প্রেরণ করা হোক।